এলার্জি ঔষধ এর নাম | চোখ ও মুখের এলার্জি ঔষধ এর নাম

এলার্জি ঔষধ এর নাম | চোখ ও মুখের এলার্জি ঔষধ এর নাম

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সকলে অনেক ভাল আছেন আজকে আমরা কথা বলব এই এলার্জি ঔষধ এর নাম বিষয়ে। তাছাড়া বাচ্চাদের এলার্জি ঔষধ এর নাম, চোখের এলার্জি ঔষধ এর নাম, মুখের এলার্জি ঔষধ এর নাম সহএলার্জি বিষয়ক সকল তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করব।

 

এলার্জির সমস্যা আমাদের জীবনে অনেকখানি ব্যবধান সৃষ্টি করে। এক্সিমা, অ্যাসথমা, হাইভ, ধূমপান বা নির্দিষ্ট খাবারের প্রতিক্রিয়া হতে পারে। এলার্জির প্রতিক্রিয়া অত্যন্ত কষ্টকর হতে পারে এবং জীবনকে আরও মাত্রায় সম্পন্ন করতে হলে এটি সমস্যার সমাধান করা উচিত। এখানে আমরা এলার্জি ঔষধের নাম নিয়ে কিছু আলোচনা করব।

 

এলার্জি ঔষধ এর নাম

এলার্জি, যা সচরাচর আমাদের শরীরের প্রতিক্রিয়ার একটি অস্বাভাবিক ধরন। এটি সাধারণত ধূলো, ছাঁক, কেউর বা নির্দিষ্ট খাবারের প্রতি আমাদের শরীরের অতিরিক্ত প্রতিক্রিয়া আকারে ঘটে। এলার্জির প্রতিক্রিয়া মুখরোগ, চোখের জ্বালাপোড়া, শ্বাসকষ্ট এবং অনেক সময় ত্বকের এলার্জি হিসেবে প্রকাশ পায়।

 

এলার্জির ঔষধ হলো এমন এক ধরনের ঔষধ যা এলার্জির প্রতিক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে এবং এর লক্ষনগুলি হ্রাস করে। এই বিষয়টি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানার জন্য আমরা একটি গবেষণা শুরু করব।

 

এখন আমরা কিছু আপনাদের সাথে ওষুধের লিস্ট শেয়ার করব যা কিনা এলার্জি প্রতিরোধে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আর এসব ওষুধ সেবনের আগে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নিবেন।

  1. সিটিরিজিন (Zyrtec)
  2. লেভোসিটিরিজিন (Xyzal)
  3. ফেক্সোফেনাডিন (Allegra)
  4. লোরাটাডিন (Claritin)
  5. ডিপেনহাইড্রামিন (Benadryl)
  6. মন্তলুকাস্ট (Singulair)
  7. অ্যাকলিজিন (Accolate)
  8. প্রেডনিসোলোন (Prednisolone)
  9. হাইড্রোক্সিজিন (Hydroxyzine)
  10. ডেক্সামেথাসোন (Dexamethasone)
  11. বেটামেথাসোন (Betamethasone)
  12. ট্রিয়ামসিনোলোন (Triamcinolone)
  13. ফ্লুটিকাসোন (Fluticasone)
  14. মোমেটাসোন (Mometasone)
  15. বুডেসোনাইড (Budesonide)

উপরের লিস্ট করার সকল ঔষধি হচ্ছে এলার্জি প্রতিরোধ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আপনারা এ ধরনের ওষুধ সেবন করতে পারেন তো অবশ্যই এ ধরনের ওষুধ সেবন করার আগে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

 

কেননা ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোন ঔষধি সেবন করা ঠিক নয় কেননা পরবর্তীতে এর অবস্থা আরো খারাপ হতে পারে তাই যে কোন ওষুধ খাওয়ার আগে অবশ্যই ডাক্তারের অথবা চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত

 

 

এন্টিহিস্টামিন ঔষধ

এন্টিহিস্টামিন ঔষধ এলার্জির প্রতিক্রিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করে। এই ধরনের ঔষধ ব্যবহার করা হয় মূলত হাইভ, চোখের এলার্জি, এক্সিমা এবং অ্যাসথমার প্রতিক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করার জন্য। কোন বিশেষ ধরনের এলার্জি হলে আপনার ডাক্তার এই ঔষধ প্রেস্ক্রাইব করতে পারেন। সাধারণত, এন্টিহিস্টামিন ঔষধ সমূহ হলেন: সিটিরিজিন (Zyrtec), লেভোসিটিরিজিন (Xyzal), ফেক্সোফেনাডিন (Allegra), লোরাটাডিন (Claritin) এবং ডিপেনহাইড্রামিন (Benadryl)।

 

কর্টিকোস্টেরয়েড ঔষধ

কর্টিকোস্টেরয়েড ঔষধ এলার্জির প্রতিক্রিয়া হ্রাস করতে সাহায্য করে। এই ঔষধগুলি মূলত অ্যাসথমা, এক্সিমা এবং নাকের এলার্জির প্রতিক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে। এনজিওটেনসিন কনভার্টিং এনজাইম (ACE) নিহিলেটর, বেটা ব্লকার, ননস্টেরয়েডাল এন্টি-ইনফ্লামেটরি ড্রাগ (NSAID) এবং এলার্জি ইমিউনোথেরাপি এলার্জি প্রতিক্রিয়া হ্রাস করে।

 

দীর্ঘায়িত প্রতিক্রিয়া ঔষধ

দীর্ঘায়িত প্রতিক্রিয়া ঔষধ যেমন মন্তলুকাস্ট (Singulair) এবং অ্যাকলিজিন (Accolate) হলেন অ্যাসথমা এবং এলার্জিক রাইনাইটিস ব্যবস্থাপনার জন্য ব্যবহৃত।

সবশেষে, এলার্জি ঔষধ সম্পর্কে তথ্য আপনার নিকটস্থ স্বাস্থ্য সেবা প্রদানকারীর কাছে পাওয়া উচিত। যেকোন ধরনের ঔষধের ব্যবহার শুরু করার আগে সেখানে কোন প্রতিক্রিয়া হলে তা জানা উচিত।

 

চোখের এলার্জি ঔষধ এর নাম

আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ আছে যাদের কিনা চোখে এলার্জি হয়ে থাকে আর তাদের জন্য এই লিস্ট। চোখের এলার্জির জন্য সাধারণত ব্যবহৃত কিছু ঔষধের নাম নিম্নরূপ:

  1. কেতোটিফেন ফুমারেট (Alaway, Zaditor)
  2. অলোপাতাডিন (Pataday, Patanol)
  3. অজেলাস্টিন (Optivar)
  4. ইপিনাস্তিন (Elestat)
  5. বেপোতাস্টিন (Bepreve)
  6. নেডোক্রোমিল (Alocril)
  7. ফেনিরামিন (Visine-A, Opcon-A)

এই ঔষধ গুলোর ব্যবহার আগে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। আমরা সব সময় বলি ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোন ওষুধ সেবন করা ঠিক নয় কেননা ডাক্তারের পরামর্শ নিলে আপনার সঠিক তথ্যটি জানতে পারবেন।

 

অর্থাৎ আপনার চোখের অবস্থা অথবা আপনার এলার্জির অবস্থা বর্তমান অবস্থা দেখে ডাক্তার আপনাকে ওষুধ দিবে আর সেই ওষুধ অনুযায়ী আপনি সেবন করতে থাকবেন আর অযথা অন্য ওষুধ সেবন করলে অথবা আপনার বর্তমান অবস্থা ছাড়া যে কোন এলার্জির ওষুধ সেবন করলে এতে আপনার সমস্যা হতে পারে তাই অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে সঠিক ভাবে সেবন করবেন।

 

 

মুখের এলার্জি ঔষধ এর নাম

মুখের এলার্জি হলও এমন একটি অস্বাভাবিক শরীরীয় প্রতিক্রিয়া যা সাধারণত নির্দিষ্ট খাবার, দ্বিষ্ট পদার্থ, ওষুধ বা অন্যান্য উপাদানের প্রতি আমাদের শরীরের প্রতিক্রিয়া হিসেবে ঘটে। এর প্রতিক্রিয়া সাধারণত মুখে চামড়ার চুলকানি, ফোলা বা চোখের চারপাশে লালচে ও ফোলা হিসেবে প্রকাশ পায়।

 

এর বিপরীতে, মুখের এলার্জি ঔষধ হলো এমন ঔষধ যা এলার্জির প্রতিক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে এবং এর লক্ষণগুলি হ্রাস করে।মুখের এলার্জির জন্য সাধারণত ব্যবহৃত কিছু ঔষধের নাম নিম্নরূপ:

  1. ডিফেনহাইড্রামিন (Benadryl)
  2. লোরাটাডিন (Claritin)
  3. সিটিরিজিন (Zyrtec)
  4. ফেক্সোফেনাডিন (Allegra)
  5. মন্তলুকাস্ট (Singulair)

এই ঔষধ গুলোর ব্যবহার আগে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। সম্পূর্ণভাবে দেখা যায় যে, এলার্জি একটি সাধারণ অবস্থা যা অনেকেই অভিজ্ঞতা করেন। এটি সব সময় ভয়ানক নয়, তবে তার লক্ষণগুলি অনেক সময় অসুবিধাজনক হতে পারে।

 

এলার্জি ঔষধগুলি এই লক্ষণগুলি পরিচালনা করার এবং প্রতিবন্ধক হিসেবে কাজ করে। তবে, সমস্ত ঔষধ নির্দেশনা মেনে চলা এবং যে কোন ঔষধ ব্যবহারের আগে ডাক্তারের পরামর্শ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া, এলার্জি প্রতিকারের স্থায়ী সমাধান নিজেকে সম্ভাব্য প্রেরক উপাদান থেকে দূরে রাখা।

এলার্জি ঔষধ এর নাম  চোখের এলার্জি ঔষধ এর নাম  এলার্জি ঔষধ এর নাম বাংলাদেশ  মুখের এলার্জি ঔষধ এর নাম  এলার্জি ঔষধ এর নাম স্কয়ার  বাচ্চাদের এলার্জি ঔষধ এর নাম  এলার্জি ঔষধ এর নাম হোমিওপ্যাথি

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top